উন্মুক্ত স্থানে সূর্যের আলোয় কাজ করায় নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে কুয়েত

NEWS

প্রায় এক মাস ধরে তাপপ্রবাহে পুড়ছে কুয়েত সহ গোটা মধ্যপ্রাচ্য। বায়ুমন্ডল ও মাটি এখন প্রচন্ড উত্তপ্ত। তীব্র গরমে অতিষ্ঠ জনজীবন। ব্যাহত হচ্ছে মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। খা খা করছে মাঠ প্রান্তর। ঘরে বাইরে সব খানেই অস্বস্তিকর পরিস্থিতি। শহর, বন্দর ও গ্রামে চিত্রও একই। বৃষ্টিতে প্রশান্তি পেতে উদগ্রীব মানুষ।

ইতিমধ্যেই মধ্যদুপুরে উন্মুক্ত স্থানে সূর্যের আলোয় কাজ করায় নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। জুন থেকে আগস্ট এই ৩ মাস তীব্র গরমের কারণে কর্মীদের স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে সকাল ১১ টা থেকে বিকাল ৪ পর্যন্ত শ্রমিকদের কাজে নিষেধাজ্ঞার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে কাজ করা শ্রমিক ও প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে জরিমানা বিধান রয়েছে।

দেশটিতে এখন দিনেরবেলায় ৪৫ থেকে ৫০ ডিগ্রির তাপমাত্রা থাকে। এতে নাভিশ্বাস উঠেছে মানুষের। ঘরে-বাইরে কোথাও স্বস্তি পাওয়া যাচ্ছে না গরমের কারণে। তীব্র তাপদাহের ফলে অস্থির হয়ে উঠছে মানুষ।

আর রোদের কারণে রাস্তায় বের হলে গায়ে লাগছে আগুনের তাপ। কুয়েতের বিভিন্ন রাস্তাঘাটের পাশে জনবহুল অঞ্চলে স্থানীয় কুয়েতিদের বাসার সামনে পথচারীদের জন্য ঠান্ডা পানির কুলার ব্যবস্থা রয়েছে। রাস্তার পাশে মোড়ে মোড়ে আইসক্রিম সহ ঠান্ডা পানীয় বিক্রি করতে দেখা যায়।

See also  আমিরাতে কমলো দিরহামের রেট, দেখে নিন টাকা ও সোনার সর্বশেষ রেট কত

কুয়েতে প্রায় ৩ লাখ বাংলাদেশির বসবাস। এখানে সিংহভাগ প্রবাসী শ্রমিকের ভিসায় রয়েছেন। তারমধ্যে খোলা আকাশের নিচে কাজ করার সংখ্যা কিন্তু কম নয়৷ নির্মাণ শ্রমিক, ক্লিনার কোম্পানি, বাইক রাইডার, বিভিন্ন দোকান ও পানি কোম্পানির হোম ডেলিভারি

সার্ভিসসহ এসব কাজে বাংলাদেশিদের সংখ্যা তুলনামূলক বেশি৷ নিজেদের জীবনকে রঙিন করতে বা অর্থনৈতিক স্থিরতা ফেরাতে নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছে প্রবাসী বাংলাদেশিরা। তীব্র গরমের কারণে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত সহ হিটস্ট্রোকের বিষয়ে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা।